সালামি চাইলে টাকার জায়গায় যেমন উত্তর পাওয়া যায়


মাশিয়াত ইসলাম প্রমিতি


ঈদের সালামি নিয়ে প্রতি বছর অনেক নাটক হয় । সালামি চাইতে গেলে মানুষ হাত পকেটে ঢুকিয়ে বেশ আরামে কথাটা কাটিয়ে দেয়। সেরকম কিছু উত্তর নিয়ে লেখা এই গল্পটি।

ঈদের সকাল। আমি ঘুম থেকে তাড়াতাড়ি উঠে সেজেগুজে সবাইকে সালাম দিতে গেলাম। দিন শেষে পকেটে শুধু ২০০ টাকা আর এরকম কিছু উত্তর পেলাম।

 

মা: আমাকে জ্বালাইও না। আমার আজকে অনেক কাজ,  কিছুক্ষণ পর তোমার মামা আসবে।

মামা চলে যাওয়ার আগে: তোমার জন্য অনেক দোয়া রইল। ভালো মানুষ হও আর অনেক বড় হও।

বোন: আমি তো ফকির। আর ফকিরের কাছে সালামি নিতে হবে না। তোকে একদিন বাইরে খাওয়াতে নিয়ে যাব।

সেই দিন আর জীবনেও আসে না…

মামা: মামা, আমাকে এখনি রওনা দিতে হবে নাহলে আমার বাসার গেট লাগিয়ে দিবে।

মামী: বাবা, তোমার মামা কে বল। তুমি তো জানোই সে আমার হাতে কোন টাকা দেয় না।

চাচা: আজকের খাবার অনেক মজার ছিল। আমাকে এখন বাসায় ফিরতে হবে। অফিস এর একটু কাজ আছে।

চাচী: তোমার চাচার সাথে একটু কথা বলে দেখি।

এই কথা শুনার পর তিন বছর পার হলো, একটা পয়সাও পাই নি…

পাশের বাসার আন্টি: বড়রা ছোটদের চেয়ে বেশি পাবে।

আমি সবার চেয়ে ছোট, তাই শুধু ৫০ টাকা পাই।

ফুপা: এবার ব্যবসা তে বেশি একটা লাভ হয় নি।

ফুপু: বাসায় একটু সমস্যা চলছে।

শেষ পর্যন্ত এই পরিবার বছরে দু’বার বিদেশ ভ্রমণ করে।

ভাইয়া: যেদিন সবাই তোকে সালামি দিবে, সেদিন তুই আমার কাছে আসবি।

আর সেই শুভ দিন কখনোই আসে না।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Leave a comment
scroll to top